‘বাংলাদেশ গ্লোবাল সামিট’ শেষ হল মালয়েশিয়াতে।

মঙ্গলবার, ০৩ জানুয়ারি ২০১৭ | ৪:০৪ পূর্বাহ্ণ | 45 বার

‘বাংলাদেশ গ্লোবাল সামিট’ শেষ হল মালয়েশিয়াতে।

‘বাংলাদেশ গ্লোবাল সামিট’ শেষ হল মালয়েশিয়াতে।

মালয়েশিয়ায় বর্ণাঢ্য আয়োজন ও আনুষ্ঠানিকতার মধ্যদিয়ে শেষ হলো ‘বাংলাদেশ গ্লোবাল সামিট’। ইউরোপিয়ান প্রবাসী বাংলাদেশিদের সংগঠন ‘অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন’ আয়োজিত দুইদিনের এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে কুয়ালামপুরের বার্জায়া টাইম স্কয়ার হোটেলের বল রুমে। সম্মেলনে প্রবাসীদের সমস্যা, সম্ভাবনা, দেশে বিনিয়োগ, জ্বালানি, পরিবেশ, পর্যটন, অভিবাসনসহ উন্নয়নের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি অনুষ্ঠিত হয়েছে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সম্মেলনে কুয়ালালামপুর ডিক্লারেশন নামে একটি ঘোষণাপত্র প্রকাশ করেন আয়োজকরা। এই সম্মেলনের উদ্বোধন করেন মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই-কমিশনার মো. শহীদুল ইসলাম ।

প্রথম দিনের অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী সেশনের পর শুরু হয় বিশেষায়িত কর্মশালা। এতে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা প্রবাসীরা বাংলাদেশিদের সম্ভাবনা ও করণীয় নিয়ে আলোচনা করেন।

দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানে ছিল পৃথক চারটি সেমিনার। আলোচনা সভার প্রধান অতিথি ছিলেন, মালয়েশিয়ার পর্যটন ও সংস্কৃতিমন্ত্রী দাতো সেরি মোহাম্মদ নাজরি বিন আব্দুল আজিজ। এসময় বাংলাদেশিদের প্রতি গভীর ভালবাসার কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, এটি একটি ঐতিহাসিক সম্মেলন, এতো সুন্দর একটি সিদ্বান্ত নেয়ার জন্য ‘অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন’ জানাই। আমি বাঙালিদের প্রতি অতি আকৃষ্ট,কারণ তাদের মধ্যে ভাল একটি সংস্কৃতি রয়েছে। লন্ডনে এক সফরে গিয়ে আমি কোথাও হালাল খাবার পাইনি, শুধু মাত্র বাংলাদেশিদের রেষ্টুরেন্টে সম্পূর্ণ হালাল খাবার পেয়েছিলাম। বাংলাদেশের সাথে মালয়েশিয়ার অনন্ত বন্ধুত্ব পূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে এবং এটি ভবিষ্যতেও থাকবে ।
মালয়েশিয়ার পর্যটন ও সংস্কৃতিমন্ত্রী বলেন, প্রথমেই এই প্রবাসী সম্মেলন কুলালামপুরে করার পছন্দকে স্বাগত জানাচ্ছি। মালয়েশিয়ার একটি মুসলিম দেশ,এদেশের মাটি মুসলমানদের জন্য যতটা নিরাপদ তেমনি অন্য ধর্মাবলম্বীদের জন্যও নিরাপদ। আমি জানি বিদেশে বসবাস কারি বাংলাদেশী প্রবাসীদের সংখ্যায় মালয়েশিয়া তৃত্বীয়। বাংলাদেশিদের প্রতি মালয়েশিয়াকে সেকেন্ড হোম ভাবার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আপনারা মালয়েশীয়ায় শুধু বেড়াতে বা শ্রম দিতে আসবেন না। আপনারা এ দেশকে সেকেন্ড হোম মনে করে বসবাস করুন, এ ব্যপারে আমি নিজে সহায়তা করবো এবং সকল সম্যসা সামাধানে মালয়েশিয়া সরকার সহযোগিতা করবে।

তিনি বলেন, মালয়েশীয়ার অর্থনীতিতে বাংলাদেশী কর্মিরা বিশেষ একটি ভূমিকা পালন করছে,তাদের শ্রমেই মালয়েশিয়ার অর্থনীতি উন্নত হচ্ছে। আমি মালয়েশিয়ানদের প্রতি অনুরোধ রাখবো আপনারা যখন উমরা করতে সৌদি আরবে যান,এই যাওয়া বা আসা বাংলাদেশ হয়ে যান । কার বাংলাদেশ চমৎকার একটি দেশ। মালয়েশিয়ায় এ রকম আরও সম্মেলনের আয়োজনের প্রবাসী বাংলাদেশিদের আহবান জানান দাতো সেরি মোহাম্মদ নাজরি বিন আব্দুল আজিজ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার শহীদুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ বিরাজ করছে। অনেক বিদেশী প্রতিষ্ঠান এখন বাংলাদেশে বিনিয়োগ করে লাভবানও হচ্ছে। বাংলাদেশের বাইরে যেসব প্রবাসী বসবাস করছেন, তারাও দেশে বিনিয়োগ করতে পারেন। প্রবাসী বাংলাদেশিরাও দেশে বিনিয়োগের এই সুযোগ নিতে পারেন। এতে করে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারবেন, একইসঙ্গে দেশের সঙ্গে তাদের যোগাযোগও আরও গভীর হবে। হাইকমিশনার বলেন, হাজার বছর ধরে বাংলায় ক্ষুধা থাকলেও সেটা এখন আর নেই। এখন বাংলাদেশের মানুষ নিজের ক্ষুধার চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে চাল রফতানি করছে। এটা মনে রাখতে হবে, এখন বাংলাদেশ অনেক উঁচুতে অবস্থান করছে। আমাদের ছোট করে দেখার কোন সুযোগ নেই।

অল ইউরোপীয়ান বাংলাদেশ এ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব কাজী এনায়েত উল্লাহ বলেন, প্রবাসীরা বাংলাদেশের জন্য বিশেষ অবদান রাখছেন। বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক অগ্রগতিতে প্রবাসীদের অবদান ছোট করে দেখার কোন সুযোগ নেই। প্রবাসীরা বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্য কোন কোন ক্ষেত্রে আরও কি কি ধরনের অবদান রাখতে পারেন, সেটা আলোচনার জন্যই মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ গ্লোবাল সামিটের আয়োজন করা হয়েছে। এই সেমিনারের মাধ্যমে বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাসী বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে একটি রূপরেখা তুলে ধরা হয়েছে।

অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশনপ্রকৌশলী জয়নাল আবেদিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সংবাদ প্রতিদিন সম্পাদক আবেদ খান, একুশে টেলিভিশনের সিইও মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, দৈনিক যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম, সময় টেলিভিশনের সিইও আহমেদ জোবায়ের, দৈনিক ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, বিবিসির বাংলা বিভাগের প্রধান সাবির মুস্তাফা, বিজিএমই’র সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম ও অধ্যাপক ফরহাদ আনোয়ার।

প্রবাসীদের মধ্যে বক্তব্য দেন মালয়েশিয়ার ব্যবসায়ী মকবুল হোসেন মুকুল, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী হাকিকুল ইসলাম খোকন, তাহমিনা ওয়াটসন ও মায়া নেহাল, কোরিয়া প্রবাসী আবু বকর সিদ্দিক রানা, সিঙ্গাপুর প্রবাসী ড. এম এ রহীম, বিডিচ্যামের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মির্জা সবুর, মো. সাখাওয়াত হোসেন, সিকদার গিয়াস উদ্দিন, মাহবুব সিরাজ, অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী সরওয়ার কামাল এবং জাপান প্রবাসী শেখ আলীমুজ্জামান, আয়েবার প্রধান উপদেষ্টা আহমেদ সামাদ চৌধুরী, কোষাধ্যক্ষ মুহিবুর রহমান মুহিব, ভাইস প্রেসিডেন্ট ফাখরুল আকম সেলিম, নুরুল করিম, রানা তসলিম উদ্দিন, শামসুল আলম লিটন,শরীফ আল মোমিন, সম্মেলনের প্রধান সমন্বয়ক মাঈনুল ইসলাম নাসিম, এম এ এইচ ফেরদৌস, শফিক খান, মাহারুল ইসলাম মিন্টু, নাসরিন জাহান ও সাইফুল খন্দকার।

বাংলাদেশ গ্লোবাল সামিটে সিঙ্গাপুর থেকে অংশগ্রহণ করেন আমাদের বাংলাদেশ নিউজের প্রধান সম্পাদক রাশিদুল ইসলাম জুয়েল, বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার সিঙ্গাপুর – বিডিচ্যামের আজহারুল ইসলাম, আসাদ মামুন, মো. নাসিরুল ইসলাম মনি, খোরশেদ আলম চৌধুরী, জাহাঙ্গীর আলম জনি, মো. শামসুর রহমান ফিলিপ, মো. মাসুদুর রহমান, রেজাউল করিমসহ ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দ।

আলোচনা সভা শেষে শান্তা জাহানের উপস্থাপনায় ‘বাংলাদেশ নাইট’ শীর্ষক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান গান পরিবেশন করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত গণসঙ্গীতশিল্পী ফকির আলমগীরস। এছাড়াও বিভিন্ন দেশে বসবাসরত প্রবাসী শিল্পীরা অনুষ্ঠানে নৃত্য ও গান পরিবেশন করেন।
সম্মেলনের শেষ পর্বে গ্লোবাল সামিটের রূপরেখা ঘোষণা করেন সংগঠনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ড: জিন্নুরাইন । রূপরেখা ঘোষণার পর ব্যবসায়ী নেতা মো: আতিকুল ইসলাম অল ইউরোপীয়ান বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব কাজী এনায়েত উল্লাহকে আহবায়ক করে ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ অর্গেনাইজেশন ( ডাব্লিউবিও ) নামে নতুন একটি সংগঠন গঠনের প্রস্তাব করেন। সম্মেলনে যোগ দেয়া বিশ্বের শতাধিক প্রবাসী বাংলাদেশী এ প্রস্তাব সমর্থন এবং আহবায়ককে অভিনন্দন জানান।

Comments

comments

সেপ্টেম্বর ২০১৭
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। নবধারা নিউজ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Development by: webnewsdesign.com