সিডনিতে গল্পকথা’র আয়োজনে দুই বাংলার কন্ঠশিল্পী আবিদা সুলতানা,রফিকুল আলম,সফিক তুহিন,অমিত কুমার ও সুমিত কুমারের গানের অনুষ্টান সন্পন্ন

বৃহস্পতিবার, ৩১ আগস্ট ২০১৭ | ৮:৪০ অপরাহ্ণ | 64 বার

সিডনিতে গল্পকথা’র আয়োজনে দুই বাংলার কন্ঠশিল্পী আবিদা সুলতানা,রফিকুল আলম,সফিক তুহিন,অমিত কুমার ও সুমিত কুমারের গানের অনুষ্টান সন্পন্ন

সিডনির লিভারপুলে গত ১৮ই অগাষ্ট শুক্রবার রাতে গল্পকথার আয়োজনে বাংলাদেশে ও ভারতের সাংস্কৃতিক শিল্পীদের যৌথ উদ্যোগে এক মনোরম সঙ্গীত-সন্ধ্যা অনুষ্টিত হল।

সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিটে পর্দায় বাংলাদেশের পতাকা প্রদর্শনের সাথে সাথে একটি বাংলাদেশ তুমি জাগ্রত জনতার’ এই দেশাত্মবোধক গানটি দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু করে বিটিভির পরিচিত উপস্থাপিকা হাসনা হেনার সাবলীল উপস্থাপনায় উপস্থিত দর্শকদের আসন গ্রহণের অনুরোধ জানানো হয় এবং মঞ্চে গল্পকথা’র সভাপতি আশিক রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এলিজা আজাদকে এই অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য নিয়ে সংক্ষিপ্ত শুভেচ্ছা বক্তব্য অনুরোধ করা হয়।
আয়োজনের প্রথম পর্বটি বঙ্গবন্ধুর স্মরণে উসর্গ করা হয়। এই পর্বে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের নির্মমভাবে হত্যা হওয়া সকল সদস্যেদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয় এবং বঙ্গবন্ধুর উপরে নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র দেখানো হয়।এরপর রোকসানা বেগম এর পরিচালনায় ড: রফিক খাঁন- এর লেখা ও মিজানুর রহমান তরুনের সুরে শিশুশিল্পী আনন্দ, আদ্রিতা, আয়ান,অনিলা ও শাবনূর বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে একই ইংলিশ গান পরিবেশন করে। এই শিশুদের পরিবেশিত গানটিসহ অনুষ্ঠানের এই পর্বটিতে উপস্থিত ভিন্নদেশী সকল দর্শক শ্রদ্ধার সাথে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে স্মরণ করেন।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বটি সাজানো হয় সদ্য প্রয়াত বাংলাদেশের বিশিষ্ট সুরকার, গীতিকার, সংগীত পরিচালক ও গায়ক লাকি আকন্দ স্মরণে। এই প্রয়াত শিল্পীর জনপ্রিয় কয়েকটি গানের প্রথম কিছু লাইন নিয়ে মঞ্চে আসেন সিডনির পরিচিত শিল্পী এহসান আহমেদ। তাকে গিটারে সহযোগিতা করেন রাকিব ফেরদৌস।

এরপর মঞ্চে আসেন সিডনির কিশোর’ বলে পরিচিত শিল্পী জিৎ দাস। যিনি উপমহাদেশের বিখ্যাত শিল্পী কিশোর কুমারের একটি অতি জনপ্রিয় গান গেয়ে এই শিল্পীর স্মরণে সিডনিবাসীর পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন।

জিৎ দাসের গানের পরেই সুরের ডালি নিয়ে একে একে মঞ্চে আসেন দুই দেশের ছয় বিখ্যাত কণ্ঠশিল্পিরা। শুরুতেই সংগীতে বাংলাদেশের জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত কণ্ঠশিল্পী ও গীতিকার শফিক তুহিন তার জনপ্রিয় গান দিয়ে মাতিয়ে তোলেন দুইদেশের দর্শকদের।এরপর বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে একটি গান পরিবেশন করে স্বাধীন বাংলা বেতারের শব্দযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধা ও বিখ্যাত কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলম মঞ্চে আসেন ও তার আরো কয়েকটি জনপ্রিয় গান পরিবেশন শেষে মঞ্চে আমন্ত্রণ করেন তার সহধর্মিনী, বাংলাদেশের আরেকজন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আবিদা সুলতানাকে এবং তিনিও বাংলাদেশের কিছু জনপ্রিয় গান পরিবেশন করেন।পরবর্তীতে ছয়বারের মতো সিডনিতে এসে এই দম্পতি তাদের জনপ্রিয় ডুয়েট গেয়ে মঞ্চ মাতালেন।

ইন্ডিয়া ও বাংলাদেশের আশির দশকের সেই বহুল জনপ্রিয় গানের সমাহার নিয়ে আসেন বিখ্যাত শিল্পী কিশোর কুমারের বিখ্যাত দুই সন্তান অমিত কুমার ও সুমিত কুমার। তাদের সাথে কোকিল কন্ঠী সাইলাজা সুব্রামনিয়াম ছিলেন আলাদা চমক। গান পরিবেশনের পাশাপাশি দর্শকদের বিনোদন করবার মতো দারুন যোগ্যতার প্রমান রেখে গেলেন এই কিংবদন্তির সন্তানেরা।

টানা ছয় ঘন্টার এই আয়োজনটি ছিল পরিপাটি ও গোছানো। পুরো হল জুড়ে দর্শকরা মনোমুগ্ধ হয়ে এই আয়োজন উপভোগ করেছেন। এতো বড় একটি গানের আয়োজনের সাউন্ড সিস্টেম, লাইটস এবং সার্বিক ব্যাবস্থাপনা ছিল প্রশংসনীয়। দুই দেশের হাজারো দর্শকের উপস্থিতিই এই সন্ধ্যাকে প্রমান করে দিয়েছে যে সঙ্গীতের কোনো ভাষা নেই, রাষ্ট্র নেই। এই একই কথাগুলো মঞ্চে আয়োজকদের শুভেচ্ছা বক্তৃতায়ও উচ্চারিত হয়েছিল।দুই দেশের গুণীশিল্পীদের একত্রিত করে এই আয়োজনকে একটি মহতী উদ্যোগ বলে অবিহিত করে উপস্থিত দর্শকরাও মুহুর্মুহু করতালি দিয়ে আয়োজকদের বারংবার সাধুবাদ জানায়

Comments

comments

এপ্রিল ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« মার্চ    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। নবধারা নিউজ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Development by: webnewsdesign.com