প্রাণ হাতে নিয়ে ইউরোপ!

রবিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫:২১ পূর্বাহ্ণ | 15 বার

প্রাণ হাতে নিয়ে ইউরোপ!

প্রতিদিন শিরোনামে উঠে আসছে সাগরপথে ইউরোপে পাড়ি দিতে গিয়ে অভিবাসন প্রত্যাশীদের মৃত্যুর সংবাদ। তা সত্ত্বেও বাড়ছে সাগরপথে আগমনের হার। মনে হচ্ছে মৃত্যুই তাদের একমাত্র মুক্তি। হায়রে প্রবাস জীবন…

আবার শিরোনামে স্পেনের ক্যানারি দ্বীপ। বুধবার আফ্রিকা থেকে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নিয়ে আসা একটি নৌকা থেকে ১০০জনকে উদ্ধার করেছে স্প্যানিশ উদ্ধারকর্মীরা।

চলতি বছরের শুরু থেকে ১৫ আগস্ট পর্যন্ত এই রুটে ইউরোপে পৌঁছেছেন আট হাজার ২২২জন অভিবাসনপ্রত্যাশী। সংখ্যাটি গত বছরে ছিল তিন হাজার ৩৬৪ জন। ২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে এই পথে ক্যানারি দ্বীপে আগমন বেড়েছে ২৯ শতাংশ।

পাশাপাশি, এই পথে ইউরোপে আসতে গিয়ে নৌকা পথভ্রষ্ট হয়ে যাত্রীদের মৃত্যুর নানাবিধ খবর উঠে এসেছে সংবাদমাধ্যমে। শুধু আফ্রিকার বা ইউরোপের উপকূলেই নয়, দিক হারিয়ে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের মরদেহ নিয়ে ডিঙি নৌকা ভেসে ভেসে পৌঁছায় মধ্য আমেরিকার ক্যারিবিয়ান সাগরের তটবর্তী ত্রিনিদাদেও।

মৌরিতানিয়া, মরক্কো, ওয়েস্টার্ন সাহারা ও সেনেগালের মতো দেশের তট থেকে ছোট ছোট কাঠের, রবারের বা ডিঙি নৌকায় চেপে যাত্রা করেন বেশির ভাগ অভিবাসনপ্রত্যাশীরা।

আগমনের ধারা সামলাতে ব্যস্ত উদ্ধারকর্মীরা

স্প্যানিশ উদ্ধার সংস্থা প্রোএক্টিভা ওপেন আর্মসের উদ্ধারকারী জাহাজ ‘দ্য আস্ট্রাল’-এ ব্যস্ততার পরিবেশ। ইটালির দ্বীপ লাম্পেদুসা সংলগ্ন সাগর এলাকায় গত কয়েকদিনে এসে পৌঁছেছে বেশ কয়েকটি নৌকা।

চলতি বছরের শুরু থেকে ৭ মে পর্যন্ত ইটালির লাম্পেদুসায় এসে পৌঁছান ১১ হাজারেরও বেশি অভিবাসনপ্রত্যাশী। এরপর থেকে থামেনি অভিবাসনের এই ধারা।

ওপেন আর্মসের আস্ট্রাল জাহাজটির সমন্বয়ক ডেভিড লিয়াডো এই বিষয়ে বলেন, “টিউনিশিয়া থেকে লাম্পেদুসার এই পথে আসার হার ব্যাপকভাবে বেড়েছে। কিছু দিন আগে, আমরা একদিনে ছয়টি দলকে উদ্ধার করেছি। সেই একই দিনে লাম্পেদুসায় আসেন আটশ অভিবাসনপ্রত্যাশী।”

অভিবাসনের এই চাপ সামলাতে বেহাল অবস্থা আস্ট্রাল জাহাজটির, কারণ এত যাত্রী ধারণ করার ক্ষমতা নেই সেটির। তাসত্ত্বেও সাগরে উদ্ধার কাজে নিয়োজিত এই জাহাজটি উদ্ধার কাজ অব্যাহত রাখে, যতক্ষণ না পর্যন্ত ইটালিয়ান উপকূলরক্ষীরা এসে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নিয়ে না যায়।

ইটালিয়ান সংবাদমাধ্যম বলছে, বুধবার সাতটি নৌকা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ১৯১জন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে।

চ্যারিটি সংস্থা সি-আই তাদের উদ্ধারকারী জাহাজে বুধবার মধ্য ভূমধ্যসাগর থেকে উদ্ধার করেছে ২৯ জনকে। ভোরবেলা তারা খুঁজে পায় সাগরে ভাসমান একটি নৌকায় থাকা অভিবাসন প্রত্যাশীদের, যার মধ্যে ছিল বেশ কয়েকজন অভিভাবকহীন অপ্রাপ্তবয়স্ক অভিবাসন প্রত্যাশী ও গর্ভবতী নারীরাও।

বর্তমানে, ভূমধ্যসাগরে উদ্ধারের কাজে নিয়োজিত রয়েছে সি-আই ছাড়াও রেকশিপ ও ওপেন আর্মস সংস্থার উদ্ধারকারী জাহাজ, যারা প্রত্যেকেই এই সপ্তাহে বিপুলহারে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের আগমনের কথা নিশ্চিত করেছেন।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা আইওএম-এর তথ্যমতে, এখন পর্যন্ত মধ্য ভূমধ্যসাগরের এই পথে প্রাণ হারিয়েছেন এক হাজার ৯৫ জন।

Comments

comments

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। নবধারা নিউজ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Development by: webnewsdesign.com