সিডনির সফল রেস্টুরেন্ট উদ্যোক্তা মিল্টন

শুক্রবার, ১৮ নভেম্বর ২০২২ | ১:০৫ পূর্বাহ্ণ | 12 বার

সিডনির সফল রেস্টুরেন্ট উদ্যোক্তা মিল্টন

সঠিক পরিকল্পনা আর ইচ্ছাশক্তি থাকলে জীবনের সফলতা সম্ভব। আজ তেমনি একজন সিডনিতে বসবাসরত সফল রেস্টুরেন্ট উদ্যোক্তা শাহজাহান মিল্টনের সফলতার গল্প বলবো আপনাদের।

মিল্টনের উদ্যোক্তার হওয়ার গল্প:

অভিবাসনের পর থেকেই তিনি উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন দেখেন। স্বপ্নবান এই তরুণ উদ্যোক্তা নিজেকে নতুন করে আবিষ্কার করতে ঝাঁপিয়ে পড়েন নতুন উদ্যমে, নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে।

মি: মিল্টন অষ্ট্রেলিয়ার সিডনিতে ২০০০ সালে অভিবাসন নেন। তাঁর কর্মক্ষেত্রের শুরুটা ছিল কিচেনে ডিস ওয়াসিং দিয়ে। পরে সালাত তৈরীতে এবং কুকের অধীনে সহযোগী হয়ে কাজ করতে করতে নিজেই কুক হিসাবে আত্ন প্রকাশ করেন। তারপর বছর ঘুরতেই হেড কুক হিসাবে কাজ শুরু করেন।

দুই বৎসর পর প্যারাডিসো রেষ্টুরেন্ট এন্ড রিসিপশন এবং উলুমুলু বে হোটেলে কার্য নির্বাহী শেফ হিসাবে কাজ করেন। ষ্ট্রুরবারী হিলস হোটেলে প্রধান শেফ থাকা অবস্থায় প্রস্তাব পান রয়েল এক্সিভিশন হোটেল কিচেন অপারেটর হিসাবে। এছাড়াও তিনি প্যারামাঠার কমার্শিয়াল হোটেল, রেডফানে টুডোর হল হোটেল, ব্রন্টি বিচে ব্রন্টি বার এন্ড গ্রিল এবং কোগরাতে আমিচি ডি ইটালিয়ান রেষ্টুরেন্ট সফলতার সহিত পরিচালনা করেছেন।

সিডনির কিংক্রসে ‘ক্রস এক্স চিকেন’ এই বছর জানুয়ারী থেকে ও ‘বাংলা ভিলেজ’ রেষ্টুরেন্ট গতমাস থেকে চালু করেছেন।

তরুণ ব্যবসায়ী মিল্টন বলেন, ধৈর্য্য এবং সততার সাথে সব সময় কাজ করেছি। প্রতিদানস্বরুপ আমার প্রতিষ্ঠান সফল হয়েছে। ব্যক্তিগতভাবে সফল হয়েছি আমি রেস্তোরাঁর ব্যবসায়।

দেশের গ্রামের চিত্র মনে করেই নামকরণ করা হয়েছে এই প্রতিষ্ঠানের। এতটা সময় বিদেশী কালচারাল ফুড পরিবেশনার পর এখন ফিরে এসেছি-দেশীয় স্বাদ ও ঐতিহ্য খাবার নিয়ে। হাইজেনিক ও সেফটি মেনে স্বাস্থ্যসম্মত সাশ্রয়ী খাবার পরিবেশন করতে চাই। বাঙালি স্বাদ ঠিক রেখে কিছুটা নতুনত্ব ও দ্রুততর সার্ভিস দিতে চাচ্ছি।

অন্য রেষ্ট্রুরেন্ট থেকে আপনার ভিন্নতা কি জানতে চাইলে মিল্টন জানান, টাইমিং, কাস্টমার সার্ভিস, ফুড হেন্ডেলিং ও ফুড ষ্টোরেজ ও হাইজেনিক মেন্টেন করার জন্যই আমার এই উদ্যোগ। আমি সর্বদা চেষ্ঠা করি সঠিক মান বজায় রেখে খাবার পরিবেশন করতে।

করোনা আবহে অনেকে ব্যবসায় মুখ থুবড়ে পড়লেও; মিল্টন এখনো এই প্রতিযোগীতায় টিকে আছে। দীর্ঘ বছরের প্রচেষ্টায় মিল্টন এখন সফল উদ্যোক্তা।

তারুণ্যের শক্তি, সততার সাহস আর পরিশ্রমের ফলে ব্যবসায় সাফল্য বয়ে আনার প্রচেষ্ঠায় আজকের ‘বাংলা ভিলেজ’। তিনি আশা করছেন, গ্রাহকের মন জয় করে ধীরে ধীরে নিজের জায়গা তৈরি করতে পারবেন এবং তাঁর রেস্তোরাঁও জনপ্রিয় হয়ে উঠবে।

‘বাংলা ভিলেজ’
৪৯ রেলওয়ে প্যারেড, ল্যাকান্বা, সিডনি।

Comments

comments

২০১৭ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। নবধারা নিউজ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Development by: webnewsdesign.com